কৌশলগত অগ্রাধিকারসমূহ

IDRF সংস্থার কৌশলগত নির্দেশনার প্রধান উপাদানসমূহ ও পরবর্তী ৫ বছরে যেসব কার্যবিষয়ে আলোকপাত করা প্রয়োজন তা এই অংশে বিশ্লেষণ করা হইলো। IDRF সংস্থার কৌশলগত নির্দেশনাসমূহ কৌশলগত অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে নিম্নলিখিত চারটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে:

প্রাতিষ্ঠানিকঃ iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থা অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণে অগ্রাধিকার দেয়া।

কার্যক্রমভিত্তিকঃ iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থার নির্দেশনা এবং নীতিমালা অনুসারে একটি দক্ষ, কার্যকর ও উচ্চমানসম্পন্ন আইনগত সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনায় প্রয়োজনীয় অগ্রাধিকার দেয়া।

সহযোগিতামূলকঃ আইনগত সহায়তা সেবা প্রদান কার্যক্রমকে আরও কার্যকর করার লক্ষ্যে সরকারি, বেসরকারি ও নাগরিক সমাজের বিভিন্ন অংশীদারদের সাথে কাজ করার জন্য iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থার চাহিদা পূরণ অগ্রাধিকার দেয়া।

অর্থসংক্রান্তঃ iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থা’র সর্বোচ্চ আইনি সহায়তা প্রদান নিশ্চিত করার জন্য দাতাদের অর্থ সহযোগিতাসহ পর্যাপ্ত সম্পদের চাহিদা পূরণ অগ্রাধিকার দেয়া।

কৌশলগত অগ্রাধিকারসমূহ:

iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থার কৌশলগত বিবেচনাসমূহ

প্রাতিষ্ঠানিক

মানসম্পন্ন আইনগত সহায়তা সেবা প্রদানের জন্য iDrF লিগ্যাল এইড সংস্থা সুশাসন, ব্যবস্থাপনা এবং কার্যপদ্ধতি, প্রয়োজনীয় সুবিধা এবং মানবসম্পদ দ্বারা সমৃদ্ধ থাকবে।

কার্যক্রমভিত্তিক

iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থা এর মূলনীতি অনুসারে উচ্চমানসম্পন্ন এবং কার্যকর আইনগত সহায়তা সেবা প্রদান কার্যক্রম পরিকল্পনা, ব্যবস্থাপনা এবং তদারকি করবে।

সহযোগিতামূলক

দরিদ্র জনগণের সুবিচার প্রাপ্তি উন্নয়নের জন্য iDrF লিগ্যাল এইড  সংস্থা অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের (সরকারি এবং বেসরকারি) সাথে সক্রিয়ভাবে কাজ করবে।

অর্থসংক্রান্ত

সংস্থার লক্ষ্য পূরণ করা এবং কৌশলগত অগ্রাধিকারসমূহ অর্জনের জন্য iDrF লিগ্যাল এইড  পর্যাপ্ত সম্পদে সমৃদ্ধ থাকবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *